Gonoshastho Shomaj Vittik Medical College Unit

সন্ধানী গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজ ইউনিট

gsvmc

 

অসুস্থতা, হাসপাতাল তারপর রক্ত এই তিনের যেন এক নিবিড় সম্পর্কে যেটা স্রষ্ঠার নিয়ম সেই রক্তের জন্য অসহায় রোগীর স্বজনদের দ্বারে দ্বারে অসহায় কেঁদে যাওয়া দিক বেদিক ছুটো ছুটি যে কোন মুল্যেই চাই রক্ত, সেই রক্তেই স্বজনরা চায় তার প্রিয়জনের সুস্থতা। এটিই হাসপাতালের নিত্য নৈমন্তিক ঘটনা।
সময়টা ২০০৫-২০০৬ হাসপাতালের অসহায় রোগীর স্বজনেরা যখন একব্যাগ রক্তের চাহিদা নিয়ে মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসে এক করিডোর থেকে অন্য করিডোরে ঘুরত তখন মনে প্রচন্ড দোলা দেয় কিছু নিবেদিত প্রাণের। ঠিক তখনই অসহায় স্বজনদের একটু আস্বস্থ্য করতে একটু শান্তির হাসি ফুটাতে গেলে যায় তারা। প্রয়োজনে নিজের দেহ থেকে অথবা বন্ধু বান্ধবের দ্বারস্ত হয়ে রক্ত সংগ্রহ করে অসহায় স্বজনদের রক্তের চাহিদা মিটিয়ে দিত। বিনিময়ে পেত অসহায় রোগীর একটু হাসি।

এভাবে চলল দুই বছর কিন্তু এভাবে কতদিন যার মাঝে আছে নানা আইনি বাধা।

তখন যোগাযোগ করা হল মেডিকল কলেজের শিক্ষক, বড় ভাই এবং আরও অনেকের সাথে যাদের প্রত্যেকেরই কথা দরকার একটি সঙ্গবদ্ধতার- দরকার এমন একটি সংগঠনের যার আছে বিশ্বপরিচিতি-যার নামে আছে আস্থা, আছে বিশ্বাস, সেই একটি নামের খোজে লড়া, অবশেষে পাওয়া গেল সেরকম সংগঠন যার নাম সন্ধানী।

তখন থেকেই এই মহান সংগঠনের সাথে সময়ে অসময়ে নানাভাবে সংযোগ স্থাপনের জন্য উঠে পড়ে লাগল দুই নিবেদিত প্রাণ রাসেল ৪র্থ বর্ষ এবং রায়হান ৩য় বর্ষ।

একে তো বেসরকারী মেডিকেল কলেজ তার উপর রুম সংকট।
যোগাযোগ করা হল সন্ধানী কেন্দ্রীয় পরিষদ ও সন্ধানী ঢাকা মেডিকেল কলেজ ইউনিটের সাথে তৎকালীন (২০০৬-২০০৭) কেন্দ্রীয় সভাপতি মোঃ খিজির হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক পলাশ পাল এর সাথে যেখান থেকে নানা দিক নির্দেশনা একটি রুম, একটি অবকাঠামো, ভিন্ন নামে একটি সংগঠন সবই করা হল নাম রাখা হল প্রথমত ”হেলপ” যার যাত্রা শুরু ২৬শে মার্চ ২০০৭ ইং জাতীয় স্মৃতি সৌধের সামনে মহান বিজয় দিবসে সন্ধানী ঢাকা মেডিকলে কলেজ ইউনিট এর সাথে যৌথ ভাবে রক্তের গ্র“প নির্ণয় ও স্বেচ্ছায় রক্ত সংগ্রহ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তারপর পথ চলা অনেক স্কুল অনুষ্ঠান ও কলেজ অনুষ্ঠানে আর ও বেশি সাংগঠনিক, বেড়ে গেল মনোবল তারপর একে একে এল সেই শুভক্ষন সন্ধানী গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের জন্য সেই স্মরনীয় অধ্যায়, ২২শে জ ুন, তৎকালীন কেন্দ্রীয় কমিটি ২০০৬-২০০৭ এর আহ্বানে ২৬তম সন্ধানী কেন্দ্রীয় ষাম্মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ ইউনিট, জন্ম নিল সন্ধানীর ১৮তম ইউনিটের।

বর্তমান কর্মসূচীসমুহঃ

  • ১।স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী ও রক্তের গ্রুপ নির্নয় কর্মসূচী
  • ২। টিকাদান কর্মসূচীঃ বর্তমানে সন্ধানীতে নিচের টিকাসমূহ পাওয়া জাচ্ছেঃ হেপাটাইটিস -বি *টাইফয়েড *জরায়ুমুখ ক্যানসার
  • ৩। ড্রাগ ব্যাংকঃ এখান থেকে গরীব অসহায় রোগীদের চিকিৎসায় সহায়তা করা হয়।
  • ৪।থ্যালাসেমিয়া বিষয়ক কর্মসূচীঃ থ্যালাসেমিয়া রোগীদের জন্য নিয়মিত রক্তের ব্যবস্থা করে দেয়া হয়।
  • ৫।এতিম শিশুদের নিয়ে ইফতার মাহফিল ও ঈদ সামগ্রী প্রদান।

 বিগত বছরের উল্লেখযোগ্য কর্মসূচীঃরক্তদান কর্মসূচী, রক্তের গ্রুপ নির্নয়, টিকাদান কর্মসূচী, ড্রাগ ব্যাংক, থ্যালাসেমিয়া বিষয়ক কর্মসূচী ছাড়াও অন্যান্য কার্যক্রম

  • ১।সবোর্চ্চ রক্তদাতাদের সম্মাননা প্রদান
  • ২।হেলথ ক্যাম্প
  • ৩।এতিম শিশুদের নিয়ে ইফতার মাহফিল ও ঈদ সামগ্রী প্রদান।
  • ৪।দুস্থ মানুষদের শীত বস্ত্র প্রদান।।।।

 ফেসবুক গ্রুপঃ Sandhani,Gonoshasthaya Samaj Vittik Medical College Unit

 স্থায়ী মোবাইল নম্বরঃ

  • সভাপতি : ০১৭৯৬৩৮৮০০৩
  • সাধারন সম্পাদক :  ০১৭৯৬৩৮৮০০২

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *