Sir Salimullah Medical College Unit

সন্ধানী স্যার সলিমুল্লাহ্ মেডিকেল কলেজ ইউনিট

ssmc

 

১৯৮২ সাল। সন্ধানী স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজের কয়েকজন কোমলমতি অথচ কর্তব্যপরায়ন তরুণের মনে বেজে উঠে একই সুর-আর তা হলো বিপন্ন মানুষের অসহায় মুহুর্তে তার পাশে দাঁড়িয়ে তার জন্য যাতে কিছু করতে পারা যায়, এমন একটি সংগঠন গড়ে তুলবার অদম্য আগ্রহ। তাদের এই স্বপ্নকে হাত ধরে বাস্তবে নিয়ে আসার ব্যাপারে এগিয়ে এলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজের সন্ধানীর একনিষ্ঠ দুই কর্মী ডাঃ ইদ্রিস এবং ডাঃ আজাদ। স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দেয়ার প্রয়াসে পেলেন সন্ধানী স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজের ইউনিটের পঁচ প্রতিষ্ঠাতা সদস্য- ৪র্থ বর্ষের আমিন, কাজী রফিকুল ইসলাম, এ.বি.এম. কাউসার কামাল, আব্দুল রহমান সাঈদ এবং ৩য় বর্ষের নারায়ণ চন্দ্র মোদক সুমন (সুমন চৌধুরী)।

শুরু হয় সন্ধানী স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ইউনিটের পথযাত্রা। প্রতিকূল রাজনৈতিক অবস্থা সত্ত্বেও সন্ধানী প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পেতে থাকে। বেশ কয়েকবার নিজেদের মধ্যে আলোচনার পর কলেজ প্রশাসনের সহযোগিতায় এবং ডাঃ আজাদের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে এই পাঁচ তরুণ সফল হন সন্ধানী স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ইউনিটের প্রথম কার্যকরী কমিটি গঠনে-তারিখটি ছিল ১৯৮২ সনের ২৭ ফেব্রুয়ারি। ১৯৯২ সালে ১০ম ব্যাচের নবীন বরণ উপলক্ষে কলেজের ১নং গ্যালারীতে প্রথম স্বেচ্ছায় রক্তদান অনুষ্ঠান এবং একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। ১৯৮৩-৮৪ সেশনে সন্ধানী স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ইউনিটের কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ক্যাম্পাসের বাইরে মহাখালী তিতুমীর কলেজে স্বেচ্ছায় রক্তদানে ঋদ্বুদ্ধকরণ অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। একই কার্যবছরে ড্রাগ ব্যাংক নতুন করে সুবিস্তৃত পরিসরে পরিসরে চালু  হয়। তৎকালীন সভাপতি বিল্লাল আলম এবং সাধারণ সম্পাদক নারায়ণ চন্দ্র মোদক সুমনের অক্লান্ত পরিশ্রমে গড়ে উঠে পূর্ণাঙ্গ ড্রাগ ব্যাংক। হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডাঃ সিরাজুল ইসলাম সন্ধানীর জন্য সার্জিক্যাল বিল্ডিং এর ১০৫ নং রুমটি বরাদ্দ করেন। পরবর্তীতে কাজের জন্য একটি টেবিল প্রদান করেন তৎকালীন এক স্টাফ নার্স, আমরা এই স্টাফ নার্সের নিকট চিরঋণী হয়ে থাকব। ১৯৮৬-৮৭ সেশনে তৎকালীন সভাপতি মঈন উদ্দিন আহমেদ পিন্টুর ছোট ভাই সেজান মাহমুদ, নকীব খানের সহযোগিতায় সন্ধানী সঙ্গীত সৃষ্টি ও রেকডিং এর কাজ সম্পন্ন করেন।

এরপর কালের পরিক্রমায় শত বাধা-বিপত্তি সত্ত্বেও সকল সন্ধানীয়ানদের আন্তরিক প্রচেষ্টার মাধ্যমে সন্ধানী স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ইউনিট আপন মহিমায় অগ্রসর হতে থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *